পুলিশ অফিসারের হস্তক্ষেপে বিদ্যুৎ পেল ১৫টি হিন্দু পরিবার

পুলিশ অফিসারের হস্তক্ষেপে বিদ্যুৎ পেল ১৫টি হিন্দু পরিবার সংগৃহিত ছবি

শেখ হাসিনার উদ্যোগ, ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ম শেখ হাসিনা’র ঘোষণা মোতাবেক সারাদেশের মত নাগেশ্বরীর কুটিপয়ড়াডাঙ্গায় গত জুন মাসে বিদ্যুৎ পৌছে গেলেও  গ্রামের কতিপয় দুষ্কৃতিকারী ব্যক্তি ও দালাল চক্রের কারণে অত্র গ্রামের ১৫টি হিন্দু পরিবার বিদ্যুতের আলো থেকে বঞ্চিত ছিল।

উক্ত গ্রামের হিন্দু পরিবারগুলো বিদ্যুতের জন্য বিভিন্ন দপ্তরে যোগাযোগ করে কিন্তু বিদ্যুৎ আর আসে না। এছাড়াও উক্ত দালাল চক্রটি দীর্ঘদিন যাবৎ  প্রতারণার মাধ্যমে গ্রামবাসীর কাছ  থেকে গ্রামে বিদ্যুৎ দেয়ার কথা বলে মোটা অংকের টাকা  হাতিয়ে  নেয় এবং  বিভিন্নভাবে গ্রামবাসীকে  হয়রানী করতে থাকে। পরে অত্র গ্রামের সমাজসেবক তছলিম উদ্দিন ও ইয়াকুব আলীর কল্যাণমুখী উদ্যোগের ফলে গ্রামবাসী দ্রুত বিদ্যুৎ পায় কিন্তু দালাল চক্রের বাধার মুখে অত্র গ্রামের ১৫টি হিন্দু পরিবার বিদ্যুৎ থেকে বঞ্চিত ছিল। গ্রামবাসী বিষয়টি অত্র গ্রামের কৃতি সন্তান ডিএমপির  অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার মোঃ জাহাঙ্গীর আলমকে গত ৮ ও ৯ ডিসেম্বর/১৯ ফোনে জানায়। জাহাঙ্গীর আলম বিষয়টি বাংলাদেশ পল্লীবিদ্যুতায়ন বোর্ডের মাননীয় চেয়ারম্যানকে অবহিত করার সাথে সাথে চেয়ারম্যান মহোদয়ের নির্দেশে উক্ত হিন্দু পরিবারগুলোতে ১০ ডিসেম্বর বিদ্যুতের সংযোগ দেয়া হয়। বিদ্যুৎ পেয়ে কুটিপয়ড়াডাঙ্গা গ্রামের হিন্দু পরিবারগুলো খুবই আনন্দিত হয়।

গ্রামের গনেশ ও ব্রজেনের সাথে কথা হলে তারা জানান, আমাদের গ্রামের কৃতি সন্তান ডিএমপির অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার মোঃ জাহাঙ্গীর আলম একজন খুবই ভাল মানুষ, আমরা তার এ উপকারের কথা কোন দিনই ভুলবো না। তিনি গ্রামের উন্নয়নে কাজ করছেন, আমরা তার জন্যে দোয়া করি।

ডিএমপির অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার মোঃ জাহাঙ্গীর আলমের সাথে কথা হলে তিনি বলেন, আজকে এ গ্রামের হিন্দু পরিবারগুলোর মাঝে বিদ্যুৎ আসার কারণে শিক্ষা, স্বাস্থ্যসহ মানুষের জীবনযাত্রার মান আরও একধাপ এগিয়ে গেলো। বিদ্যুতের আলোতে গ্রামের ছাত্র-ছাত্রী যারা আছেন তাদের লেখাপড়ায় অনুপ্রেরণা যোগাবে এবং মানুষের নানাবিধ সুযোগ সুবিধার সৃষ্টি হবে। যা দেশের আর্থসামাজিক উন্নয়নে সহায়ক ভুমিকা পালন করবে। এছাড়াও বিদ্যুৎ আসার ফলে গ্রামে সেচ কার্যক্রম শুরু হয়েছে, কৃষি  উন্নয়ন হবে, এর সুফলও গ্রামবাসী পাবেন।

গ্রামবাসীরা বলেন, সরকার আমাদের বিদ্যুৎ দিয়েছে, আমরা আলোকিত হয়েছি, ভবিষ্যতেও আমরা সরকারের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে গ্রামবাসী সকলেই সহযোগিতা করবো।

উল্লেখ্য যে, ডিমএপির অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার মোঃ জাহাঙ্গীর আলম সরকারি দায়িত্ব পালনের পাশপাশি একজন সমাজকর্মীও বটে, তিনি ত্রিমাত্রিক-৩০ বিসিএস অফিসার্স কো-অপারেটিভ সোসাইটি লিঃ-এর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি। এ সংগঠনটি একটি সমাজসেবী সংগঠন হিসেবে পরিচিত। এ সংগঠনটি প্রতিবছর ফ্রি হেলথক্যাম্প, শীতবস্ত্র বিতরণ, দরিদ্র শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষা সামগ্রী বিতরণসহ নানামুখী জনকল্যানমূলক কর্মকান্ড পরিচালনা করে থাকে এবং সংগঠনের প্রত্যেক সদস্য নিজ নিজ গ্রামের উন্নয়নে অবদান রাখার জন্য কাজ করে যাচ্ছেন।

আপনার মতামত লিখুন :

আরও পড়ুন :