আকাশপথে করোনাভাইরাস ছড়ানোর ঝুঁকিতে নেই বাংলাদেশ

আকাশপথে করোনাভাইরাস ছড়ানোর ঝুঁকিতে নেই বাংলাদেশ আকাশপথে করোনা ভাইরাস ছড়ানোর ঝুঁকিতে নেই বাংলাদেশ

আকাশপথে করোনাভাইরাস ছড়াতে পারে এমন ৩০টি ঝুঁকিপূর্ণ দেশের তালিকায় নেই বাংলাদেশ। তবে তালিকায় রয়েছে ভারতের নাম। এ ছাড়া মালয়েশিয়া ও সিঙ্গাপুরের নামও রয়েছে। জার্মানির হামবোল্ড ইউনিভার্সিটি অ্যান্ড রবার্ট কোচ ইনস্টিটিউট এই তালিকা প্রকাশ করে।

তালিকায় ভারতের বেশ কয়েকটি বিমানবন্দরের নাম অন্তর্ভুক্ত করলেও বাংলাদেশি কোনো বিমানবন্দরের নাম নেই। অবশ্য তালিকার ১৭তম স্থানে রাখা হয়েছে ভারতীয় উপমহাদেশকে।গবেষণার বরাত দিয়ে এনডিটিভি বলছে, ভারতের দিল্লির ইন্দিরা গান্ধী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর দিয়ে করোনা প্রবেশের ঝুঁকি সবচেয়ে বেশি। এরপর আছে যথাক্রমে মুম্বাইয়ের ছত্রপতি শিবাজি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ও কলকাতা বিমানবন্দরের নাম। এ ছাড়া বেঙ্গালুরু, চেন্নাই, হায়দরাবাদ ও কোচি বিমানবন্দরও আছে ঝুঁকিতে।

খবরে বলা হয়েছে, এই তালিকায় মালয়েশিয়া ও সিঙ্গাপুর আছে যথাক্রমে ৮ ও ৯ নম্বরে। এই দুটি দেশে আকাশপথে করোনা প্রবেশের আশঙ্কা যথাক্রমে দশমিক ৬৮৪ ও দশমিক ৫৪০ শতাংশ। আর ভারতের আকাশপথে করোনা প্রবেশের আশঙ্কা দশমিক ২১৯ শতাংশ। প্রসঙ্গত, বিশ্বজুড়ে ৪ হাজার বিমানবন্দরে উড়োজাহাজ চলাচলের ধরন বিশ্লেষণ করে এদের মধ্যে পাওয়া ২৫ হাজারেরও বেশি প্রত্যক্ষ যোগাযোগের ভিত্তিতে এই তালিকা প্রণয়ন করেছে জার্মানির ওই বিশ্ববিদ্যালয়।

গত বছরের ডিসেম্বরে চীনের হুবেই প্রদেশের উহানে প্রথমবারের মতো করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। চীনসহ অন্তত ২৮টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে প্রাণঘাতী এই ভাইরাস। এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত অন্তত ৮১১ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ ছাড়া আক্রান্তের সংখ্যা ৩৭ হাজার ছাড়িয়ে গেছে। 

এদিকে, করোনাভাইরাসের সম্ভাব্য সংক্রমণ ঠেকাতে শুরু থেকেই নানা প্রদক্ষেপ গ্রহণ করেছে বাংলাদেশ সরকার। ইতোমধ্যে সব বিমানবন্দর ও স্থল বন্দরগুলোতে সতর্কতা জারি করা হয়েছে। সেইসঙ্গে চীন থেকে আর কোনো বাংলাদেশিকে দেশে না ফেরানোরও সিদ্ধান্ত হয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন :

আরও পড়ুন :