ট্রাম্পের ঘনিষ্ঠ বন্ধুই প্রকাশ করেছে মেলানিয়ার নগ্ন ছবি

ট্রাম্পের ঘনিষ্ঠ বন্ধুই প্রকাশ করেছে মেলানিয়ার নগ্ন ছবি ডোনাল্ড ট্রাম্পে ও মেলানিয়া ট্রাম্প। ফাইল ছবি

প্রেসিডেন্টেরই বন্ধু ও উপদেষ্টা রজার স্টোন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের স্ত্রী ও মার্কিন ফার্স্ট লেডি মেলানিয়া ট্রাম্পের মডেলিং ক্যারিয়ারের সময়কার নগ্ন ছবি প্রকাশ করার নেপথ্যে রয়েছেন। এমন দাবি করা হয়েছে সম্প্রতি প্রকাশিত ‘ফ্রি, মেলানিয়া: দ্য আনঅথরাইজড বায়োগ্রাফি’ নামে একটি বইয়ে।

গতকাল মঙ্গলবার (৩ ডিসেম্বর) বইটি প্রকাশিত হওয়া কথা। মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএনের সাংবাদিক কেট বেনেট বইটির লেখক। বইতে দাবি করা হয়েছে, তার ওই ছবি প্রকাশের পিছনে ডোনাল্ড স্বামী ট্রাম্পের কোনো ভূমিকা ছিল বলে মেলানিয়া ট্রাম্প এখনও স্বীকার করেন না।

লেখকের দাবি, ট্রাম্প ও মেলানিয়া হোয়াইট হাউসে পৃথক পৃথক কক্ষে রাত্রিযাপন করেন। তবে এসব তথ্যকে মিথ্যা বলে দাবি করা হয়েছে হোয়াইট হাউসের পক্ষ থেকে। বইটির একটি কপি ইতোমধ্যে ব্রিটিশ দৈনিক দ্য গার্ডিয়ান পেয়েছে। দৈনিকটির অনলাইন সংস্করণে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

১৯৯৬ সালের এক ফটোশুটের সময় মেলানিয়া ট্রাম্পের তোলা কিছু নগ্ন ছবি ১৯৯৭ সালে ফরাসি একটি ম্যাগাজিনে প্রকাশিত হয়েছিল। ২০১৬ সালের নভেম্বরে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের মাত্র তিন মাস আগে ৩০ জুলাই মার্কিন দৈনিক নিউইয়র্ক পোস্ট মেলানিয়ার সেসব ছবি ফের প্রকাশ করে। তবে যখন ওই ছবিগুলো প্রকাশিত হয় তখন ডোনাল্ড ট্রাম্পের নির্বাচনী প্রচারণায় আনুষ্ঠানিকভাবে অভিযুক্ত রজার স্টোনের কোনো ভূমিকা ছিল না। ২০১৫ সালের আগস্টেই এ কাজ থেকে সরে গেলেও ট্রাম্পের সাথে খুব ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক ছিল তার।

তার মধ্যে আরও একটি খারাপ সংবাদ আসে। ২০১৬ সালের মার্কিন নির্বাচনে রাশিয়ার হস্তক্ষেপ ইস্যুতে তদন্ত শুরু করেন স্পেশাল কনস্যুলার ম্যুলার। তার সেই তদন্তে বাধা সৃষ্টির জন্য নভেম্বরের মাঝামাঝি দোষী সাব্যস্ত করা হয় রজার স্টোনকে। এখন তিনি এ অপরাধে শাস্তির অপেক্ষায় রয়েছেন।

অপরদিকে আগামী বছর যুক্তরাষ্ট্রে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন। এরই মধ্যে ‘ইউক্রেন কেলেঙ্কারি’ নিয়ে অভিশংসন তদন্ত চলছে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে। এরই মধ্যে আগামী নির্বাচনের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন রিপাবলিকান দলীয় প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। তার বিরুদ্ধে বেশ কিছু অভিযোগ রয়েছে নারীসঙ্গ নিয়ে।

অনেকে দাবি করেন, মেলানিয়ার সাথে ট্রাম্প যখন বৈবাহিক সম্পর্কে জড়িত তখনও তিনি একজন প্লেবয় মডেলের সাথে রাত্রিযাপন করেছেন। এছাড়া পর্নো তারকা স্টর্মি ডেনিয়েলের সাথে যৌন সম্পর্ক আর তার বিরুদ্ধে সেই সম্পর্ক ধামাচাপার অভিযোগও উঠেছিল। তবে এসব অভিযোগ বরাবরই ট্রাম্প অস্বীকার করেছেন। যুক্তরাষ্ট্রের আগামী প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগে কেট বেনেট তার বইয়ে অনেক কিছু লিখেছেন মেলানিয়া এবং তার দাম্পত্য সম্পর্ক নিয়ে। তিনি লিখেছেন মেলানিয়ার নগ্ন ছবি প্রকাশ সম্পর্কে, মেলানিয়া ট্রাম্পের সন্দেহ তার সেসব ছবি রজার স্টোন প্রকাশ করেছেন ।

তবে এর জবাব চেয়ে হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি স্টেফানি গ্রিশাম ব্রিটিশ দৈনিক গার্ডিয়ানের কাছে একটি ইমেইল পাঠিয়েছেন। তার ভাষ্যমতে বেনেটের এমন দাবি নিয়ে বিস্ময় প্রকাশ করে মেলানিয়া ট্রাম্প জানিয়েছেন, কেটের সাথে বিশ্বস্ততার সাথে কাজ করেছি। আমরা মনে করি, তিনি সততার সাথে তার কাজ করবেন।

আপনার মতামত লিখুন :

আরও পড়ুন :